আইফোন ১০ এস এবং এস ম্যাক্সঃ অ্যাপেল এর নতুন সংস্করণ


তকাল ১২ই সেপ্টেম্বর, অ্যাপেল তাদের নতুন আইফন সংস্করণ উদ্বোধন করেছে। নতুন ফোন দুটি সকল দিক থেকেই আইফোন ১০ এর সর্বাধুনিক ফিচারগুলোকে আরো উন্নত করেছে। ম্যাক্স মডেল টি ৬’৫” সাইজের ফোন যা গ্যালাক্সি নোট ৯ কেও ডিস্প্লে সাইজে ছাপিয়ে গেছে।

ইভেন্টে এর শেষে অ্যাপেল একটি সরাসরি হাতেখড়ি রিভিউ এর ব্যবস্থা করে। বহুল পরিচিত টেক ম্যাগাজিন The Verge এর রিভিউ এ বেশ কিছু মজার তথ্য উঠে এসেছে, যা এই আর্টিকেলে আপনাদের সাথে শেয়ার করছি –

নতুন আইফোন দুটির স্ক্রিন আগের চেয়েও সুন্দর করা হয়েছে এবং স্টিল ও গ্লাসের স্ক্রিনটি পিচ্ছিল ভাবও আগের চেয়ে অনেক কমানো হয়েছে, যদিও এখনই এ নিয়ে বেশী কিছু বলা যাচ্ছে না।

স্ক্রিনটি এবং গ্লাস বডি টি গতবছরের আইফোন এর আরেকটি আপগ্রেড। নতুন স্টেদিও স্পিকার ও দেয়া হয়েছে মডেল দুটিতে। বর্তমানের বাজারে অসংখ্য ফ্ল্যাগশীপ ফোনের ভিড়ে আইফোন দুটিকে অনায়াসেই চেনার মত করে অ্যাপেল ডেলিভার করেছে, এ নিয়ে কোন সন্দেহ নাই।

ইফোন ১০এস ম্যাক্স এর সাইজ অনেক বড় হলেও এটি আইফোন ৮ প্লাস এর মতই আকারে এবং তা হাতে নিলেই খুব সহজেই বুঝা যায়। আগের প্লাস মডেলগুলোর তুলনায় ফোনটি অনেক উন্নত মনে হয়। যারা আগের প্লাস মডেলগুলো ব্যবহার করেছেন, তারা খুব সহজেই এই মডেলটি কিনতে পারেন।

এর পর আশা যাক অ্যাপেল এর নতুন এ১২ বায়োনিক প্রসেসর এর দিকে। যা আগে থেকেই সবচেয়ে শক্তিশালি এ১১ বায়োনিককে করেছে আরও শক্তিশালি। অ্যাপেল এর মতে আগের মডেল এর চেয়ে এটি ১৫% বেশী শক্তিধর। তরল পদার্থ নিরোধক রেটিং ও বাড়িয়েছে অ্যাপেল এই প্রসেসর এর সাথে। এখন এটি আইপি ৬৮ রেটিং সমৃদ্ধ যা আগের চেয়ে আরও গভীর পানিতেও (২ মিটার এবং ৩০ মিনিট ব্যাপী) টিকে থাকতে সক্ষম।

সবচেয়ে আশ্চর্যের ও প্রয়োজনীয় ফিচার হচ্চে অ্যাপেলের ডুয়েল সিম সার্ভিস। যা একটি সিমের সাথে একটি ই-সিম এর মাধ্যমে ডুয়েল স্টান্ডবাই সাপোর্ট করবে। অ্যাপেল গিগাবিট ইন্টারনেট স্পিড সুবিধা দিচ্ছে এই দুটি মডেল এ। এছাড়াও ডুয়েল ১২ মেগাপিক্সেলের (আগের চেয়ে বড় পিক্সেল সাইজ ও ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স) ক্যামেরা তো থাকছেই। নতুন সেলফি ক্যামেরাটি ও আগের চেয়ে দ্রুত ছবি তুলতে সক্ষম বলে অ্যাপেল জানিয়েছে।

ক্যামেরার সকল ফিচারের মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয় হল, নতুন সেলফি ক্যামেরার পোর্টরে মোড, যা আপনাকে ছবি তোলার পর বোকেহ মোড পরিবর্তন করার সুযোগ করে দিবে। সবচেয়ে বড় পার্থক্য হচ্ছে নতুন ফোনগুলোর ডিস্প্লে সাইজ ও রেজুলেশন। যা আগের চেয়েও অনেক উন্নত করা হয়েছে। আইফোন ১০এস এর ওলেড টেকনোলজির ডিস্প্লে রেজুলেশন থাকছে ২৪৩৬ * ১১২৫ এবং ম্যাক্স মডেলের থাকছে, ২৬৮৮ * ১২৪২। ডিসপ্লে এর ডাইনামিক রেঞ্জও ৬০% বৃদ্ধি করা হয়েছে, যা আগের থেকে চোখ ধাঁধানো ডিসপ্লে কে করেছে আরো উন্নত। দুটি ডিসপ্লের ই রয়েছে ৪৫৮ পিপিআই স্কিন ডেনসিটি।

Related

কমেন্ট করুন